সকালে ঘুম থেকে উঠুন কোনো ক্লান্তি ছাড়াই!

রাতে ক্লান্ত হয়ে ঘুমোতে যান। অথচ ঘুম থেকে উঠেও মনে হয় রাতের ক্লান্তি একেবারেই যায়নি? পর্যাপ্ত ঘুমানোর পরেও শরীর ও মন জুড়ে লেগে থাকা এই ক্লান্তির উপশম কেবল ঘুমের মাধ্যমে করা সম্ভব নয়। আপনি হয়তো ঘুমোচ্ছেন, কিন্তু আপনার পারিপার্শ্বিক অবস্থা এবং কর্মকান্ড রাতে ঠিকঠাক বিশ্রাম নিতে বাঁধা প্রদান করছে আপনার শরীর ও মনকে। আর সকালটাই যদি শুরু হয় এমন ক্লান্তির সাথে, তাহলে সেটার প্রভাব তো সারাদিনে বিভিন্ন কাজে পড়বেই। সঠিকভাবে হবে না কোনোকিছুই। তাই চলুন জেনে নেওয়া যাক এমন কিছু উপায়ের কথা যেগুলো মেনে চলার মাধ্যমে রাতের ঘুম হবে চমৎকার, আর পরদিন সকালে আপনি থাকবেন ক্লান্তিহীন।

পর্যাপ্ত ঘুমিয়েও ক্লান্তিবোধ করছেন; Source: Reader’s Digest

ঘুমানোর পরেও ক্লান্তিবোধ করার কারণ

তবে হ্যাঁ, তার আগে চলুন জেনে নেওয়া যাক পর্যাপ্ত ঘুমানোর পরেও সকালে ক্লান্তিবোধ করার সম্ভাব্য কারণগুলো।

১) ভোরের দিকে স্বপ্ন দেখা

আপনি কি স্বপ্ন দেখেন; Source: Dreams

ঘুম থেকে ওঠার ৩-৪ ঘন্টা আগ থেকে আমাদের মস্তিষ্ক স্বপ্ন দেখতে শুরু করে। স্বপ্ন দেখার সময় আমাদের মস্তিষ্ক অসম্ভব কর্মক্ষম থাকে এবং অ্যাডিনোসিন নামক একটি রাসায়নিক পদার্থ নিঃসৃত হয়। এই অ্যাডিনোসিন আমাদের শরীরের যে উপাদানগুলো শরীরকে কর্মক্ষম ও সতেজ রাখে সেগুলোকে থামিয়ে দিতে সাহায্য করে। ফলে সকালটা শুরু হয় ক্লান্তির মাধ্যমে।

২) রাত করে ঘুমানো

রাত করে ঘুমানো পরিহার করুন; Source: Crypto & Forex Trading News & Analysis

আপনি কি রাত করে ঘুমান এবং পরের দিন একটু বেলা করে ঘুম থেকে ওঠেন? ব্যাপারটি মোটেও প্রভাবিত করবে না আপনাকে। মানসিক ও শারীরিকভাবে আপনি সুস্থ ও কর্মঠ থাকবেন। তবে, একটা সময়ে গিয়ে দুর্বল বোধ করবেন আপনি। আর সেটাও অল্প সময়ের জন্য নয়। অনেকটা সময়ের জন্য যথেষ্ট ঘুমালেও আপনার নিজেকে ক্লান্ত মনে হবে।

৩) ক্ষুধার্ত অবস্থায় ঘুমানো

এক গবেষণায় দেখা যায় যে, ঘুমানোর আগে মিষ্টিজাতীয় খাবার খেলে ঘুম ভালো হয়। রক্তে সুগার বেড়ে যায় এতে করে। যেটি কি না ঘুমকে বাড়িয়ে তোলে এমন সব নিউরনের কার্যক্রম বাড়াতে সাহায্য করে। এক্ষেত্রে ঘুম ভালো হয়। ক্ষুধার্ত অবস্থায় এর পুরোপুরি উল্টোটা হতে দেখা যায়।

ঘুম পরবর্তী ক্লান্তি কাটাবেন কী করে?

এতক্ষণ তো জানলেন পর্যাপ্ত ঘুমানো সত্ত্বেও সকালে ক্লান্তিবোধ করার কারণ। অবশ্যই এই কারণগুলোকে আপনার দৈনন্দিন জীবন থেকে দূর করতে পারলেই আপনার সকালের ক্লান্তি কেটে যাবে। তবে এছাড়াও আরো কিছু কাজ উপায় রয়েছে যেগুলো মেনে চললে আপনার ঘুম পরবর্তী ক্লান্তি কেটে যাবে। চলুন জেনে নেওয়া যাক সেগুলো কী।

১। রাতে ততটুকুই খান যতটা খাওয়া প্রয়োজন। খুব বেশি বা খুব দেরি করে খাবার গ্রহণ করা থেকে বিরত থাকুন।

২। ঠিক ঘুমানোর আগেই মস্তিষ্কে চাপ পড়ে এমন কাজ করা বন্ধ রাখুন।

৩। নির্দিষ্ট সময় মেনে ঘুমিয়ে পড়ুন।

ঘুমের ক্লান্তি কাটিয়ে উঠুন; Source: Power of Positivity

৪। গান, যোগব্যায়াম, বই পড়া ইত্যাদির মাধ্যমে ঘুমানোর আগে নিজেকে শান্ত করুন।

৫। আপনি যদি সকালে ঘুম থেকে উঠতে চান, তাহলে রাত ১:০০টা বা ২:০০টা পর্যন্ত জেগে থাকা বন্ধ করুন।

৬। অতিরিক্ত ঘুমানো এবং ভুল পাশে ভর দিয়ে ঘুমোতে যাবেন না। ঘুম থেকে ওঠার আগে ও পরে প্রচুর পানি পান করুন।

৭। কোনো ব্যাপার নিয়ে চিন্তায় পড়লে সেটা নিয়ে চিন্তা ঘুমানোর আগেই শেষ করুন। নাহলে আপনার ঘুম বাধাগ্রস্থ হবে।

উপরোল্লিখিত কৌশলগুলো যাচাই করে দেখুন। নিজেকে সুস্থ ও স্বাভাবিক রাখুন আর ক্যারিয়ারে থাকুন সবার শীর্ষে!

Comments