৭৬ জনকে বিভিন্ন পদে নিয়োগ দেবে বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন (বিপিএসসি)

আবেদনের শেষ সময়: ০৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

প্রতিষ্ঠান 

বাংলাদেশ সরকারী কর্ম কমিশন এর অধীনস্থ বিভিন্ন মন্ত্রণালয় এবং বিভাগ

পদ-পদসংখ্যা-বেতন

  • জুনিয়র ইন্সট্রাক্টর (রেডিও কমিউনিকেশন) – ০১ জন – ২২,০০০/- থেকে ৫৩,০৬০/- টাকা
  • অ্যাসিস্টেন্ট প্রোগ্রামার – ০১ জন – ২২,০০০/- থেকে ৫৩,০৬০/- টাকা
  • সহকারী প্রোগ্রামার – ০১ জন – ২২,০০০/- থেকে ৫৩,০৬০/- টাকা
  • পুষ্টি উন্নয়ন কর্মকর্তা – ০১ জন – ২২,০০০/- থেকে ৫৩,০৬০/- টাকা
  • অ্যাসিস্টেন্ট মেইন্টেন্যান্স ইঞ্জিনিয়ার – ০১ জন – ২২,০০০/- থেকে ৫৩,০৬০/- টাকা
  • জুনিয়র ইন্সট্রাক্টর (কারিগরি) – ১২ জন – ১৬,০০০/- থেকে ৩৮,৬৪০/- টাকা
  • উপসহকারী প্রকৌশলী (মেকানিক্যাল) – ০১ জন – ১৬,০০০/- থেকে ৩৮,৬৪০/- টাকা
  • উপসহকারী প্রকৌশলী (অপটিক্যাল) – ০১ জন – ১৬,০০০/- থেকে ৩৮,৬৪০/- টাকা
  • সিনিয়র স্টাফ নার্স – ৫৪ জন – ১৬,০০০/- থেকে ৩৮,৬৪০/- টাকা
  • উপসহকারী প্রকৌশলী (হার্ডওয়ার, সফটওয়ার ও নেটওয়ার্ক) – ০১ জন – ১৬,০০০/- থেকে ৩৮,৬৪০/- টাকা
  • সিনিয়র ইন্সট্রাক্টর (ট্রেড) [বৃত্তিমূলক, বাণিজ্যিক, শিল্প ও নকশা শাখা] – ০১ জন – ১২,৫০০/- থেকে ৩০,২৩০/- টাকা
  • সিনিয়র ইন্সট্রাক্টর (ট্রেড) [হস্তশিল্প ও সমজাতীয় প্রশিক্ষণ শাখা] – ০১ জন – ১২,৫০০/- থেকে ৩০,২৩০/- টাকা

আবেদনের শেষ সময়

০৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ০৬:০০ টার মধ্যে

আবেদনের নিয়মসহ বিস্তারিত জানতে নিচের বিজ্ঞপ্তিটি দেখুন
সব সময় চাকরির খবরের আপডেট পেতে ক্লিক করুন এখানে।
ওয়াইএসআই বাংলা জবসে আজই আপলোড করুন আপনার সিভি। রেজিস্ট্রেশনের জন্য ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

বাংলাদেশ সরকারী কর্ম কমিশন

বাংলাদেশ সরকারি কর্মকমিশন প্রজাতন্ত্রের কর্মে নিয়োগের জন্য উপযুক্ত এবং যোগ্যতাসম্পন্ন ব্যক্তি নির্বাচন করার ক্ষমতাপ্রাপ্ত একটি সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানটি বিভিন্ন দেশে তার প্রতিরূপ সংস্থাসমূহের মতো প্রজাতন্ত্রের কর্মে নিযুক্ত মানব সম্পদ পরিকল্পনায় উৎকর্ষ সাধনের পাশাপাশি জনপ্রশাসন ব্যবস্থাপনায় নিরপেক্ষতা নিশ্চিত করতে গুরুত্বপূর্ণ জাতীয় ভূমিকা পালন করছে। কর্ম কমিশন দেশব্যাপি প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষার মাধ্যমে, প্রজাতন্ত্রের কর্মে নিয়োগ লাভের উপযুক্ত ব্যক্তি নির্বাচন করে।

সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নির্বাচনের সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতার পাশাপাশি কমিশন প্রজাতন্ত্রের কর্মের জন্য যোগ্যতা ও তাতে নিয়োগের পদ্ধতি সম্পর্কিত বিষয়াদি ; প্রজাতন্ত্রের কর্মে নিয়োগদান, উক্ত কর্মের এক শাখা থেকে অন্য শাখায় পদোন্নতিদান ও বদলিকরণ এবং অনুরূপ নিয়োগদান, পদোন্নতি বা বদলিকরণের জন্য প্রার্থীর উপযোগিতা-নির্ণয় সম্পর্কে অনুসরণীয় নীতিসমূহ ; অবসর-ভাতার অধিকারসহ প্রজাতন্ত্রের কর্মের শর্তাবলীকে প্রভাবিত করে, এইরূপ বিষয়াদি ; এবং প্রজাতন্ত্রের কর্মের শৃঙ্খলামূলক বিষয়াদি সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিকে(প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)পরামর্শ প্রদান করে থাকে।

বাংলাদেশ সরকারী কর্ম কমিশন একটি স্বায়িত্বশাসিত সংস্থা যার দায়িত্ব সরকারি চাকুরীতে নিয়োগ সংক্রান্ত দায়িত্ব পালন করা। এটিকে ইংরেজিতে পাবলিক সার্ভিস কমিশন হিসাবে উল্লেখ করা হয়। এটি একটি সাংবিধানিক ও স্বাধীন সংস্থা। পাকিস্তান আমলের সরকারী কর্ম কমিশনের উত্তরাধিকার হিসাবেই বাংলাদেশে গঠিত হয়েছিল সরকারী কর্ম কমিশন। ১৯৭১ খ্রিস্টাব্দে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসাবে প্রতিষ্ঠার পর বাংলাদেশের সরকারী কর্ম কমিশন গঠিত হয়। বাংলাদেশের সংবিধানের ১৩৭ থেকে ১৪১ পর্যন্ত অনুচ্ছেদে সরকারী কর্ম কমিশন গঠনের সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা বর্ণিত আছে। একজন চেয়ারম্যান এবং কয়েকজন সদস্য সমবাযে পাঁচ বৎসর মেয়াদের জন্য কমিশন গঠিত হয়। বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি কমিশনের চেয়ারম্যান এবং সদস্যদের নিয়োগ প্রদান করেন। বর্তমানে ড. মোহাম্মদ সাদিক এর চেয়ারম্যান হিসেবে নিযুক্ত আছেন।

বাংলাদেশ সরকার ১৯৭২ সালের সংবিধান অনুসারে প্রথমাবস্থায় ২ টি ‘পাবলিক সার্ভিস কমিশন’ গঠন করে, যা পাবলিক সার্ভিস কমিশন (প্রথম) এবং পাবলিক সার্ভিস কমিশন (দ্বিতীয়) নামে অভিহিত হয়; কিন্তু পরবর্তীতে সংবিধান সংশোধন করত: উভয় কমিশনকে একত্রিত করে বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশন নামে একটিমাত্র কমিশন পদ্ধতি চালু করা হয়। বাংলাদেশ সরকারী কর্ম কমিশন বা বিপিএসসি একটি সাংবিধানিক এবং স্বাধীন ও স্বতন্ত্র প্রতিষ্ঠান। এই কমিশনের প্রধানের পদবী হবে চেয়ারম্যান। সংবিধানের ১৩৭ নং অনুচ্ছেদ বলে এই কমিশন গঠিত হয়েছে। বর্তমান বিসিএস ক্যাডার সংখ্যা ২৬টি। এর আগে এটি ছিল ২৭টি। উপমহাদেশে প্রথম সরকারি কর্মকমিশন গঠিত হয়েছিল ১৯২৬ সালে। বেঙ্গল সিভিল সার্ভিস কমিশন গঠিত হয়েছিল ১৯৩৭ সালে। বাংলাদেশ সরকারী কর্ম কমিশনের প্রথম নারী চেয়ারম্যান ছিলেন অধ্যাপিকা ড.জিন্নাতুন্নেসা তাহমিদা বেগম। এই কমিশনের প্রথম চেয়ারম্যান ছিলেন ড- এ কিউ এম বজলুল করিম।

Bangladesh Public Service Commission

Bangladesh Public Service Commission is quasi judicial constitutional body established in 1972. The commission is responsible for the recruitment of civil service servants in Bangladesh government. It was formed by Section 137 of Part IX, Chapter II of the Constitution of Bangladesh. The commission started as public service commission in 1926 during British India, it was later Known as East Pakistan Public service commission after the partition of India. After the Independence of Bangladesh it was established as Bangladesh Public Service Commission in 1972. For a while it used the Chummery House as its headquarters. It is responsible for holding Bangladesh Civil Service (BCS) Examination and publishing its results.

সূত্র: উইকিপিডিয়া।

Comments
Comments

Comments are closed.