নিয়মিত ইয়োগার যত শারীরিক সুফল

অনেক অনেক গবেষণার প্রমাণিত হয়েছে যে, নিয়মিত ইয়োগা আপনার দেহ এবং মানষিক স্বাস্থ্যকে বেশ উন্নত করে। আপনার দেহকে বেশি ফ্লেক্সিবল, শক্তিশালী করার ক্ষেত্রেও ইয়োগার ভূমিকা অসাধারণ। লোয়ার ব্যাক পেইন, বিষণ্ণতা সহ আরো দৈহিক এবং মানসিক রোগের বিরুদ্ধে অসাধারণ কাজ করে ইয়োগা। সাধারণভাবে এটি দৈহিক ব্যায়াম হলেও এর মানসিক কার্যকারিতা অনেক বেশি।

এটি ফোকাস করে আপনার দেহের ভারসাম্যের উপর। বিভিন্ন পজিশনের মাধ্যমে দেহকে আরো উন্নত এবং সুস্থ রাখতে ইয়োগার ভূমিকা অসাধারণ। আসুন ইয়োগা করার উপকারিতা সম্পর্কে জানি।

১) পা শক্ত করার ব্যাপারে ইয়োগার ভূমিকা অসাধারণ

‘চেয়ার পোজ’ আপনার পায়ের জন্য অনেক কার্যকরী একটি পোজ। এটি আপনার পায়ের সাথে সাথে কাঁধ এবং দেহের অন্যান্য অংশ শক্ত করার ব্যাপারে সাহায্য করে।

২) আপনি অসাধারণ ব্যালেন্সের অধিকারী হতে পারবেন

‘ওয়ারিয়র পোজ’ মাসল স্ট্যামিনা এবং ব্যালেন্স তৈরির ব্যাপারে আপনাকে অনেক সাহায্য করবে। এছাড়াও আপনার হাত, পা এবং কোমরের জন্য অনেক কার্যকরী একটি পোজ, যা আপনার পুরো দেহকে ব্যালেন্স করার জন্য উপযোগী করে তুলবে।

৩) ফ্লেক্সিবিলিটি এবং শক্তিশালী কাঁধ

শক্তিশালী কাঁধ এবং ফ্লেক্সিবিলিটির জন্যও ইয়োগা অসাধারণ ভূমিকা রাখে। ‘ডলফিন পোজ’ আপনাকে আপনার কাঁধের অংশকে শক্তিশালী এবং আপনাকে ভালোভাবে পুরোপুরি স্ট্রেস করতে সাহায্য করে। এছাড়াও এটি আপনার বিষণ্ণতা উপশম করতেও ইয়োগার ভূমিকা অসাধারণ।

৪) দেহের সবচাইতে নরম অংশকেও দৃঢ়করণ

‘ডলফিন প্লাংক’ আপনার সবচাইতে নরম অংশগুলোকে শক্তিশালী এবং সহনীয় হিসেবে গড়ে তুলতে সাহায্য করবে। আপনার পেটের মাংসপিন্ড সহ অন্যান্য সকল নরম মাংসপিন্ডকে বার্ন করতে পারবেন। এতে করে আপনার মেদ কমে যাবে।

৫) মুষ্টিকে শক্তিশালী করবে

‘সাইড প্লাংক’ এমন একটি ইয়োগা পজিসন, যা দ্বারা আপনি আপনার নরম মুষ্টিকে শক্তিশালী করতে পারবেন। এতে করে অনেক বিশেষ বিশেষ সমস্যা থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার সকল সুযোগ রয়েছে। এছাড়াও এই পজিশনটি আপনার অন্যান্য ইয়োগা পজিশনের মতো কাজ করবে। যেমন- ফ্লেক্সিবিলিটি, মেদ কমানো, মানসিক বিষণ্ণতা থেকে পরিত্রাণ সহ অন্যান্য আরো কিছু ব্যাপারে আপনাকে সাহায্য করবে।

৬) আপনার পিঠ এবং হাতের জন্য ইয়োগা পজিশন

শুধু মাত্র ‘প্লাংক’ এর মাধ্যমে আপনি আপনার পিঠ এবং হাতের ব্যায়ামটা সেরে ফেলতে পারেন। এটি বেশ সাধারণ একটি পজিশন হলেও এর কার্যকারিতা অতুলনীয়। আপনি ‘পুশ আপ’ পজিশনে শরীরের অবস্থান নিয়েই এই পজিশনটি তৈরি করতে পারেন। ওজন কমানোর জন্য এটি সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ পজিশন। এটি ইয়োগার ব্যায়াম হলেও মেদ কমানোর জন্য অন্যান্য বডি বিল্ডিং ওয়ার্কআউটে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি পজিশন।

৭) হাতের স্ট্যামিনা বৃদ্ধি

আপনি নিশ্চয়ই ‘ফোর লিম্বড স্টাফ পোজ’ এর কথা শোনেছেন। আপনার হাতের স্ট্যামিনা বাড়ানোর জন্য এটি অসাধারণ একটি পজিশন। আপনি চাইলেই এটি পুশ আপ পজিশনে থেকে করতে পারেন এবং অনেক সহজে।

৮) দেহভঙ্গির উন্নতি এবং সহনক্ষমতাকে স্থায়ীভাবে বৃদ্ধি

‘বুট পোজ’ অসাধারণ একটি ইয়োগা পজিশন। আপনার দেহভঙ্গির উন্নতির জন্য এটি যেমন কাজ করে, তেমনি আপনার সহনক্ষমতাকে স্থায়ীভাবে বাড়াতে সাহায্য করে।

Comments
Comments

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.