ডাটা এন্ট্রি অপারেটর নিয়োগ দিবে চাঁদপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২

আবেদনের শেষ সময়: ১৭ অক্টোবর, ২০১৯

প্রতিষ্ঠান

চাঁদপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২

পদ

ডাটা এন্ট্রি অপারেটর

শিক্ষাগত যোগ্যতা

উচ্চ মাধ্যমিক বা সমমান পাস

বেতন

১৮,৩০০/– থেকে ৩২,৭৪০/- টাকা

বিশেষ দ্রষ্টব্য:

মহিলাদের জন্য সংরক্ষিত

আবেদনের শেষ সময় 

১৭ অক্টোবর, ২০১৯ তারিখ অফিস চলাকালীন সময় বিকাল ০৫:০০ টার মধ্যে

আবেদনের নিয়মসহ বিস্তারিত জানতে নিচের বিজ্ঞপ্তিটি দেখুন
সব সময় চাকরির খবরের আপডেট পেতে ক্লিক করুন এখানে।
ওয়াইএসআই বাংলা জবসে আজই আপলোড করুন আপনার সিভি। রেজিস্ট্রেশনের জন্য ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড বাপবিবো (বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড)

হল বাংলাদেশ সরকারের একটি সংবিধিবদ্ধ সংস্থা, যার দায়িত্ব হল বাংলাদেশের গ্রামীণ অঞ্চলে বিদ্যুৎ পৌছে দেওয়া, যে কাজ বিআরইবি দেশে ৭৮টি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির মাধ্যমে করে। এর প্রধান কার্যালয় ঢাকাতে অবস্থিত। এটি বাংলাদেশের একটি অন্যতম প্রধান বিদ্যুৎ বিতরণ কোম্পানি। বিআরইবির বর্তমান চেয়ারম্যান হলেন মেজর জেনারেল মঈন উদ্দিন। পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড ১৯৭৭ সালে রাষ্ট্রপতির এক আদেশবলে প্রতিষ্ঠিত হয় এবং ১৯৭৮ সালে এটি কার্যক্রম শুরু করে।

বিআরইবি গ্রামীণ অঞ্চলে বিদ্যুৎ লাইন ও বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র তৈরি করে। গ্রামীন জনগোষ্ঠীর উন্নয়নে তথা গ্রাম বাংলাকে শহরের অনুরুপ গঠনে সহায়ক ভূমিকা পালন করছে। ২০১১ সাল পর্যন্ত বিআরইবির উদ্যোগে ৭৮টি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি গঠিত হয়েছে। এই পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি সমুহ সরকারের পরিকল্পিত ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ এর মাধ্যমে সারা বাংলাদেশে শতভাগ বিদ্যুতায়ন কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। জাতীয় গ্রিড হতে ৩৩ কেভি লাইনের মাধ্যমে বিদ্যুৎ নিয়ে প্রত্যন্ত অঞ্চলে ৩৩/১১ কেভি উপকেন্দ্র হতে ১১ কেভি ফিডারের মাধ্যমে সরাসরি গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুৎ সরবরাহ করে থাকে। পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড বাংলাদেশের পল্লী অঞ্চলে বিদ্যুৎ সরবরাহের দায়িত্বে নিয়োজিত সরকারি সংস্থা।

১৯৭৭ সালে এক সরকারি অধ্যাদেশবলে এ বোর্ড গঠিত হয় এবং ১৯৭৮ সালের প্রথম থেকেই বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন নির্মাণ ও বিদ্যুৎ বিতরণের কাজ শুরু করে। আরইবি-র প্রধান কার্যালয় ঢাকায় অবস্থিত হলেও সকল কর্মকান্ড সমবায়ভিত্তিতে গঠিত পল্লী বিদ্যুৎ সমিতিসমূহের মাধ্যমে পরিচালিত হয়। পল্লী বিদ্যুৎ সমিতিগুলি স্বায়ত্তশাসিত। এর সদস্যরাই সংশ্লিষ্ট এলাকায় বিদ্যুতের গ্রাহক এবং তারা সকলে সমান অধিকার ভোগ করে থাকেন।

বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন তৈরি কিংবা বিদ্যুৎ কেন্দ্র প্রতিষ্ঠায় এদের সকলের মতামত গণতান্ত্রিক পন্থায় গৃহীত হয়ে থাকে। ২০১১ সালের মার্চ মাস পর্যন্ত আরইবির উদ্যোগে সারা দেশে মোট ৭০টি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি গঠন করা হয়েছে। এসব সমিতির মাধ্যমে সারা দেশের ৬১টি জেলার ৪৩৩টি উপজেলার ৪৮,৭৪৬টি গ্রামে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হয়েছে। এসব সমিতির উদ্যোগে ২,২২,৭৮০ কিলোমিটার বিদ্যুৎ লাইন ও ৪২৬টি সাব-স্টেশনের মাধ্যমে গৃহস্থালি, কৃষি, শিল্প ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানসহ মোট ৮৩,২৯,৬৫৭টি বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদান করা হয়েছে।

সূত্র: উইকিপিডিয়া।

Comments
Comments

Comments are closed.